টাঙ্গাইল-২ আসনে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেল তুঙ্গে

আঃ রশিদ তালুকদার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনটিতে ১৩টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভা নিয়ে নির্বাচনী এলাকা গঠিত। এই আসনটিতে আওয়ামীলীগের এক ডজনের অধিক প্রার্থী থাকলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে বর্তমান এম,পি খন্দকার আসাদুজ্জানের সুযোগ্য পুত্র আগের চেয়ে আরোও বেশি জনপ্রিয়তা অর্জনকারী খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেল (সিআইপি)। কয়েক বারের সফল এমপি খন্দকার আসাদুজ্জান সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে গোপালপুর ও ভূঞাপুরে ব্যপক উন্নয়ন মূলক কাজ করায় খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেলকে গোপালপুর ও ভূঞাপুরের আওয়ামীলীগের তৃনমূল নেতাকর্মীরা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে এমপি হিসেবে চাচ্ছেন। তিনি তৃনমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকায় প্রচার প্রচারনা ও গণসংযোগ চালাচ্ছেন। বেশীর ভাগ নেতাকর্মী সহ সাধারণ ভোটারা নৌকা প্রতীকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা মনোনয়ন প্রত্যাশী খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেলের স্বপক্ষে ধাপিত হয়েছে। বিভিন্ন সূত্রে জানাগেছে, সে ব্যতিত অন্য কোন প্রার্থীকে নৌকা প্রতীকে দল থেকে মনোনিত করলে এ আসনটি হাত ছাড়া হয়ে বি,এন,পির দখলে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশী। এ আসনটিতে বি,এন,পির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছে সাবেক উপ মন্ত্রী ২১ শে গ্রেনেট হামলা মামলার দন্ডপ্রাপ্ত ফাঁসির আসামী আব্দুস সালাম পিন্টুর ছোট ভাই যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক একাধিক মামলার কারাবন্দী সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ফকির মাহাবুব আনাম স্বপন, ভূঞাপুর উপজেলা বি,এন,পির সাবেক সভাপতি, সাবেক উপজেলা ও পৌর সভার চেয়ারম্যান এডভোকেট আব্দুল খালেক মন্ডলসহ ৮জন প্রার্থী রয়েছে। টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তানভীর হাসান ছোট মনির, গোপালপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ইউনুছ ইসলাম তালুকদার ঠান্ডুসহ ১৭জন নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থী রয়েছে। গত ১৮ নভেম্বর আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তানভীর হাসান ছোট মনির সমর্থরা ভূঞাপুর ও গোপালপুরে নৌকা প্রতীক পাওয়ার গুজবে মিষ্টি বিতরণ করে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে। যা নির্বাচনী আচরণ আইন লংঘন করেছে। সম্প্রতি গোপালপুরে হেমনগর কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সহ সাধারণ সম্পাদক সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডাঃ দিপু মনির ২১শে গ্রেনেট হামলার প্রতিবাদের জনসভা পন্ড করে ছোট মনির সমর্থরা। এ সময় তারা রাস্তায় উপর দিপু মনির আগমন উপলক্ষে নির্মিত একাধিক গেট ভেঙ্গে ফেলে। পরে নিরাপত্তার হুমকীতে খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেলের আহ্বান কৃত জনসভাটি পন্ড হয়ে যায়। ছোট মনির ও তার সমর্থকদের ভয়ে সাধারণ ভোটাদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। এমন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে ছোট মনির কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে সাধারণ ভোটাররা। অপর দিকে পাল্লা ভারি হচ্ছে খন্দকার মশিউজ্জামান রুমেলের। তিনি জানান, কেন্দ্রীয় আমাকে নৌকা প্রতিকে মনোনয়ন দিলে আমি নিশ্চিত বিজয়ী হয়ে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখব।

পরিচিতি ইব্রাহীম ভূইয়া

এটাও চেক করতে পারেন

ঘাটাইলে স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবকদলের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *