ভূঞাপুরে আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা ও ভাংচুর ৬৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মামুন সরকার ভূঞাপুর প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর মধ্যরাতে উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মাটিকাটা বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত পার্টি অফিসে এ হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। নিকরাইল ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুল মতিন সরকার এ হামলার জন্য বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করেছেন। তবে ভূঞাপু উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা হামলার বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন।

আব্দুল মতিন সরকার বলেন, মঙ্গলবার মধ্যরাত পর্যন্ত নৌকা মার্কার নির্বাচনী প্রচারণা শেষে আওয়ামী লীগ নেতা মালেক তালুকদার, হাজী মো. বারেক ও আ. বারেক নিকরাইল ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মাটিকাটা বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত পার্টি অফিসে বসেন। কিছুক্ষণ পরেই বিএনপি ও জামায়াত-শিবির সমর্থকরা কয়েকটি মোটরসাইকেল নিয়ে ধানের শীষ শ্লোগান দিয়ে অফিসে হামলা চালায়। এসময় তারা চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে। অফিসের ভেতরে থাকা লোকজনদেরও তারা মারপিট করে আহত করে। হামলায় ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রগণ করার দাবিও জানান তিনি।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা বলেন, আতঙ্কে আামাদের লোকজন ঠিকমতো প্রচারণাই চালাতেই পারছে না। আর হামলা চালানোর সাহস পাবে কোথা থেকে। আমি হলফ করে বলতে পারি বিএনপির কোন নেতা কর্মী এ ঘটনার সাথে জড়িত নেই।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, মাটিকাটা বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত পার্টি অফিসে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় জেলা বিএনপির সভাপতি সামছুল আলম তোফাকে প্রধান আসামী করে ৬৪ জনের বিরূদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামীদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় আনা হবে।

পরিচিতি ইব্রাহীম ভূইয়া

এটাও চেক করতে পারেন

ভূঞাপুরে গরুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় অবসরপ্রাপ্ত এক পুলিশ সদস্য নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বাড়ি ফেরার পথে গরুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় আলাউদ্দিন খান (৭৫) নামে অবসরপ্রাপ্ত এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *