ভূঞাপুর হাসপাতালের বেহাল দশা চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করনে সুজনের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর হাসপাতালের চিকৎসা সেবা নিশ্চিত করনে সুশানের জন্য নাগরিকের পক্ষে থেকে ভূঞাপুরে ৩ জুন রবিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ডে এক মানববন্ধন করা হয়। এতে জানানো হয় ভুঞাপুর উপজেলা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট সরকারী হাসপাতালে বর্তমানে ডাক্তারের অভাবে চিকিৎসা সেবা ভেঙ্গে পড়েছে। ২১ জন ডাক্তারের পদ থাকলেও ৯ জন কর্মরত আছে, ১২ জন ডেপুটেশনে অনত্র চলে গেছেন। এদের মধ্যে ৪ জন শুধু আউটডোরে দায়িত্ব পালন করেন। ৮ জন কনসালটেন্ট ডাক্তারের বিপরীতে ৪ জন দায়িত্ব পালন করেন বাকি ৪ জন অন্যত্র ডেপুটেশনে কর্মরত আছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তিনি নিজেই নিয়মিত হাসপাতালে আসে না। অপর দিকে উপজেলার কোন উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে কোন মেডিকেল অফিসার কর্মরত নাই অনেক দিন ধরেই। ২য় শ্রেণির নিয়োগ কৃত কর্মকতা কর্মচারী ২২ জন কাজে নিয়োজিত থাকলেও ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী সংকট আছে ৮ জন। হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটার অচল হয়ে আছে ২০০৬ সাল থেকে, এম্বুলেন্স দেড় বছর ধরে অচল, এক্সরে মেশিন নষ্ট ৩ বছর যাবৎ, ই সি জি মেশিন নষ্ট, হাসপাতালের নিজস্ব সাপ্লায়ের পানি ব্যবহারে অনুপযোগী, পয়নিষ্কাশনের ব্যবস্থা যথাযথ না থাকায় হাসপাতাল নিজেই এখন রোগী। সপ্তাহে মাত্র দু এক দিন ডাক্তার রাউন্ডে গিয়ে থাকে। নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত ভূঞাপুর হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা তাদের ভোগান্তির অন্ত নাই। চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত ভুঞাপুর এর দ্রুত সমাধান আশা করে এলাকাবাসি। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল -২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ শামসুল হক তালুকদার ছানু, ভূঞাপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহিনুল ইসলাম তরফদার বাদল, সুজন ভূঞাপুর শাখার সভাপতি অধ্যাপক মির্জা মহীউদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক শন্তোষ কুমার দত্ত প্রমুখ।

পরিচিতি ইব্রাহীম ভূইয়া

এটাও চেক করতে পারেন

দলীয় সিদ্ধান্ত না মানায় বিএনপি নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক : কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তকে অমান্য করে দ্বিতীয় ধাপে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *