ঘাটাইলে গাছের হাসপাতাল চালু

আব্দুল লতিফ, ঘাটাইল প্রতিনিধিঃমানুষ কিংবা পশু-পাখির চিকিৎসা ও রোগ নির্ণয় ও সঠিক চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা এটা স্বাভাবিক। কিন্তু গাছের জন্য হাসপাতাল, এটা হয়তো অনেকের অজানা বা হাস্যকর মনে হলেও আসলে সত্যিই গাছের অভিনব হাসপাতাল হয়েছে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে।

এই হাসপাতালে শুধু উদ্ভিদ ও ফসলের বিভিন্ন রোগ বালাইলের চিকিৎসা দেয়া হয়। হাসপাতালের নাম দেয়া হয়েছে গাছের হাসপাতাল আর হাসপাতালটি পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে গ্রীণ কেয়ার ফাউন্ডেশন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। হাসপাতালটি স্থাপন করা হয়েছে ঘাটাইল শহীদ সালাহ উদ্দীন সেনানিবাস সংলগ্ন শাহপুর নামক স্থানে।তিন কৃষিবিদ বন্ধু রকিবুল হাসান উজ্জল, গনেশ কর্মকার ও জাহাঙ্গীর হোসেন মিলে স্থাপন করেছেন হাসপাতালটি। গত (১৩ জানুয়ারি) ব্যতিক্রমধর্মী গাছের এ হাসপাতাল কার্যক্রম চালু করা হয়। এটির উদ্বোধন করেন ঘাটাইল উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল মতিন বিশ্বাস।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালটিতে একটি অফিস কক্ষ রয়েছে। সেখানে বসেই গাছের রোগ বালাই সম্পর্কে পরামর্শ এবং ব্যবস্থাপত্র দেয়া হচ্ছে। সামনে একটি ছোট নার্সারীও রয়েছে। কয়েকজন কৃষক পরামর্শ নিতে এসেছেন। কেউ আবার রোগাক্রান্ত ফসলও নিয়ে এসেছেন। সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ব্যবস্থাপত্রসহ প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিচ্ছেন গাছের হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা রকিবুল হাসান উজ্জল। গাছের বিভিন্ন সমস্যা ও রোগ বালাই সম্পর্কে জানতে আসা চাষী ও ব্যাক্তিদের গাছ ও ফসলের বিভিন্ন রোগ-ব্যাধি এবং কীটনাশক ব্যবহার সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নানা পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।

গাছের হাসপাতালে আসা উপজেলার বাইচাইল গ্রামের শহিদুল ইসলাম জানান, গত বছর তার আম গাছে সমস্যা হয়েছিল আম ঝড়ে যেত এবং ফেটে যেত। এবার আম গাছে মুকুল ধরার সাথে সাথে অগ্রিম পরামর্শ নিতে গাছের হাসপাতালে এসেছেন। তার কথা শুনে হাসপাতাল কতৃপক্ষের নিয়োজিত পরামর্শক দল তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

শাহপুর গ্রামের কৃষক দেলোয়ার হোসেন জানান, আগে গাছ বা ফসলের কোনো সমস্যা হলে আমরা কীটনাশক ব্যবসায়ীদের কাছে গিয়ে কীটনাশক ও রাসায়নিক এনে নিজেদের ইচ্ছেমত গাছ বা ফসলে ব্যবহার করতাম। ব্যবহার বিধি জানা না থাকায় অনেক সময় আমরা ক্ষতিগ্রস্থ হতাম। গাছের হাসপাতাল চালু হওয়ায় এখন আমরা রোগ বালাই ধমনে সঠিক পরামর্শ ও সেবা পাব।

হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা কৃষিবিদ রকিবুল হাসান জানান, গাছের সেবা ও পরিচর্যার কার্যক্রম মানুষের বিনা মূল্যে পৌঁছে দেওয়ার জন্য আমরা নিদিষ্ট স্থানে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু করেছি। প্রতি সপ্তাহে একদিন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ হাসপাতালে এসে চাষীদের গাছ ও ফসলের রোগ বালাই সম্পর্কে পরামর্শক সভা করে চাষীদের ফসলের রোগ বালাই প্রতিরোধ সম্পর্কে আগাম ধারনা প্রদান করেন।

প্রতিষ্ঠাতাদের আরেকজন কৃষিবিদ গনেশ কর্মকার জানান, অল্প কয়েকদিন হল আমরা হাসপাতালটির কার্যক্রম শুরু করেছি। সাড়াও পাচ্ছি ভাল। আমরা শক্তিশালী কৃষি নেটওয়ার্ক তৈরি করে সবুজ বাংলাদেশ গড়তে চাই। কীটনাশক ও রাসায়নিক মুক্ত ফল ও সবজি উৎপাদনে চাষীদের সহায়তা ও সকল ধরনের গাছ ও ফসলের নতুন নতুন জাত মাঠ পর্যায়ে সম্প্রসারনে কাজ করতে চাই।

ঘাটাইল উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল মতিন বিশ্বাস বলেন, ব্যাক্তি উদ্যোগে বেসরকারিভাবে এটি ভাল একটি উদ্যোগ। এর ফলে কৃষকরা যে কোন সময় হাসপাতালে গিয়ে সহজে কৃষি বিষয়ে পরামর্শ পাবে । এবিষয়ে আয়োজক কতৃপক্ষ কোন প্রশিক্ষণ মূলক পরামর্শ চাইলে আমারা তা করব।

পরিচিতি ইব্রাহীম ভূইয়া

এটাও চেক করতে পারেন

শ্রাবণে বোরো ধান চাষে মেতে উঠেছে ভূঞাপুরের কৃষক

মোঃ আব্দুর রহীম মিঞা,ভূঞাপুর : শ্রাবণে বোরো ধান চাষে মেতে উঠেছে  টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের কৃষক । …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *