ভূঞাপুরে প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে স্কুলছাত্রীকে নিয়ে শিক্ষক পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সনাতন ধর্মাবলম্বী সম্প্রদায়ের এক সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে পালিয়ে নিয়ে গেছে আবু সামা (৩৫) নামে এক মাদরাসা শিক্ষক।

সে উপজেলার ধুবলিয়া এলাকায় খালেক নুরানী মাদরাসার শিক্ষক। আবু সামা উপজেলার ধুবলিয়া গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পলাতক শিক্ষক আবু সামার বড় ভাই ও সহযোগী আব্দুর রাজ্জাক ওরফে মোতালেবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ থানায় নিয়ে আসে।

জানা যায়, ধুবলিয়া গ্রামের শিক্ষক আবু সামা ওই গ্রামের খালেক নুরানী মাদরাসায় শিক্ষকতা করেন। এরই সুবাদে তিনি ধুবলিয়া বাজারে একটি ওষুধের দোকানের পিছনে গণিত বিষয়ে প্রাইভেট পড়াতেন। একসময় সনাতন ধর্মাবলম্বী সম্প্রদায়ের ওই ছাত্রী আবু সামার কাছে গণিত বিষয়ে প্রাইভেট পড়তে আসে। গত দুই মাস ধরে ওই ছাত্রীর প্রাইভেট পড়তে আসার এ সুযোগে আবু সামা কু-নজরে পড়ে।

একপর্যায়ে ওই ছাত্রীকে প্রেম প্রস্তাব দেয় ওই শিক্ষক। পরে ওই শিক্ষক বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে মেয়েটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর তাদের আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

মেয়েটির বাবা জানান, সন্ধ্যার পর থেকে মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছি না। শিক্ষক আবু সামার কাছে প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে সে আমার মেয়েকে ফুসলিয়ে ভাগিয়ে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় থানায় বৃহস্পতিবার রাতে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। পুলিশ তার ভাইকে ধরেছে বলে জেনেছি। এখন পর্যন্ত আমার মেয়ের কোন খোঁজ পাচ্ছি না।

এ ব্যাপারে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফরিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্তের বড় ভাই সহযোগী রাজ্জাককে জিজ্ঞাসাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আইগত বিষয় প্রক্রিয়াধীন এবং মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

পরিচিতি Ibrahim Bhuiyan

এটাও চেক করতে পারেন

ভূঞাপুরে মাদরাসা শিক্ষকের পুঁতে রাখা লাশ উদ্ধার, আটক – ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের সার পলশিয়া গ্রাম থেকে আব্দুল হক (৫৫) নামের এক মাদরাসা শিক্ষকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *