নাগরপুরে স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী ও ছোট ভাই গ্রেপ্তার

লোকাল নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বড় ভাইকে পানিতে চুবিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার এজাহারভূক্ত আসামি স্ত্রী ও ছোট ভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার(১৪ জুলাই) ভোরে নাগরপুর থানার উপ-পরিদর্শক মো. শাহজাহানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে জেলার মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্যা গ্রামের জিতেন শীলের বাড়ি থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, উপজেলার চৌধুরী ডাঙ্গা গ্রামের নিহত আনন্দ শীলের ছোট ভাই সুরেশ শীল (৪৫) ও তার স্ত্রী কামনা শীল (৪০)। নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাইন উদ্দিন গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, উপজেলার চৌধুরী ডাঙ্গা গ্রামের পলান চন্দ্র শীলের দুই ছেলে আনন্দ শীল(৬০) ও সুরেশ শীল (৪৫) এর মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ১৯ জুন (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় ছোট ভাই সুরেশ শীল তার বড় ভাই আনন্দ শীলকে প্রথমে শ^াসরোধ করে ও পরে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে।

ওইদিন রাতেই নিহতের ছেলে রাম প্রসাদ শীল বাদী হয়ে পাঁচ জনের নামোল্লেখ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তাৎক্ষনিভাবে সুরেশ শীলের তিন কন্যাকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনার পর থেকে তার স্ত্রী কামনা শীল ও ভাই সুরেশ শীল আত্মগোপনে ছিল।

উল্লেখ্য, উপজেলার চৌধুরী ডাঙ্গা গ্রামের পলান চন্দ্র শীলের দুই ছেলে আনন্দ শীল(৬০) ও সুরেশ শীল (৪৫) এর মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ১৯ জুন (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় ছোট ভাই সুরেশ শীল তার বড় ভাই আনন্দ শীলকে প্রথমে শ^াসরোধ করে ও পরে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে।

ওইদিন রাতেই নিহতের ছেলে রাম প্রসাদ শীল বাদী হয়ে পাঁচ জনের নামোল্লেখ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তাৎক্ষনিভাবে সুরেশ শীলের তিন কন্যাকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনার পর থেকে তার স্ত্রী কামনা শীল ও ভাই সুরেশ শীল আত্মগোপনে ছিল।

পরিচিতি ইব্রাহীম ভূইয়া

এটাও চেক করতে পারেন

জলদস্যুর হাতে জিম্মি সাব্বিরের বাড়িতে কান্না আর আহাজারি

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছেলে সাব্বিরের জিম্মিদশার খবর শুনে বাবা হারুন অর রশিদ ও মা সালেহা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *